ঢাকা ০৪:১৭ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
দর্শনা হল্ট রেলওয়ে পুলিশের সহযোগীতায় হারানো ব্যাগ সহ ব্যাগের মধ্যে প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র ফিরে পেলেন এক যাত্রী রাজশাহী জেলা শাখা স্বাচিপ সভাপতি ডা. জাহিদ ও সম্পাদক ডা. অর্ণা জামান চুয়াডাঙ্গায় রেললাইনে ফাটল ধীরগতি ট্রেন চলাচল দর্শনা হল্ট রেলওয়ে স্টেশনে বিশেষ অভিযানে সাগরদাড়ী এক্সপ্রেস ট্রেনের বগি থেকে একজন পকেটমার গ্রেফতার গুলিবিদ্ধ হয়ে জীবনশঙ্কায় স্লোভাকিয়ার প্রধানমন্ত্রী গাজা নিয়ে মতবিরোধ, প্রথম ইহুদি-আমেরিকান বাইডেন কর্মকর্তার পদত্যাগ শ্রম আইন সংশোধনে আইএলও’র পরামর্শ গ্রহণ নিয়ে নীতি-নির্ধারণী পর্যায়ে আলোচনা হবে: আইনমন্ত্রী রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রীর দায়িত্ব থেকে শোইগুকে সরিয়ে দিচ্ছেন পুতিন ভয়াবহ আগুন ইসরাইল সেনাঘাঁটিতে নতুন করে চুরি হয়নি রিজার্ভ : বাংলাদেশ ব্যাংক

পবায় বাল্যবিবাহ বন্ধে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:৫০:২২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৪ অগাস্ট ২০২৩

আমার গ্রাম, আমার দ্বায়িত্ব, শিশুর জীবন হোক, বাল্যবিবাহ মুক্ত এই শ্লোগানে রাজশাহীর পবা উপজেলার হুজুরীপাড়া ইউনিয়নের সাইরপুকুর গ্রামে বাল্যবিবাহ বন্ধে সচেতনতামূলক বিভিন্ন কর্মসূচি পালিত হয়। বাল্যবিবাহ বন্ধে সামাজিক জাগরণ সৃষ্টি উপলক্ষে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান (গম্ভীরা) অনুষ্ঠিত হয়েছে। এর আগে সাইরপুকুর মোড় হতে কনর্হার থানা পর্যন্ত বাল্যবিবাহ বন্ধে বিভিন্ন প্লেকার্ড, ব্যানার, পোস্টার, ফেস্টুন নিয়ে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালী বের হয়।

বৃহস্পতিবার (২৪ আগষ্ট) সকালে হুজুরীপাড়া সাইরপুকুর মোড় মাঠ প্রাঙ্গনে শিশু সুরক্ষা কামিটি, ভিজিল্যান্স টিম, শিশু ফোরাম ও ভিডিসির আয়োজনে ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ পবা এপির সহযোগিতায় হুজুরীপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো: গোলাম মোস্তফা এর সভাপতিত্বে  প্রধান অতিথি  ছিলেন কর্নাহার থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(অফিসার ইনচার্জ)কমল কুমার দেবনাথ।

বিশেষ অতিথি দারুসা দাখিল মাদ্রাসার এসিস্টেন্ট সুপার মো: সিরাজুল ইসলাম, কর্নাহার থানা সাব-ইন্সপেক্টর সাবিনা ইয়াসমিন, দারুসা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সোহরাব হোসেন, ইউসেপ টিম লিডার তাহমিদা খাতুন ও হুজুরীপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের ওয়ার্ড সদস্য আশরাফুল ইসলাম সহ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহন করে প্রায় এক হাজার জন শিশু, অভিভাবক, শিশু ফোরাম, ইয়ুথ ফোরামের সদস্য ও নেতৃবৃন্দ।

উল্লেখ্য বাল্যবিবাহ শিশুর প্রতিসহিংসতার অন্যতমকারণ। বাল্যবিবাহ বন্ধ করতে হলে প্রয়োজন সামাজিক জাগরণ। তৃনমূল পর্যায়ে বিশেষ করে গ্রাম পর্যায়ে সচেতনতা বৃদ্ধির মাধ্যমে বাল্যবিবাহমুক্ত করা সম্ভব। এরই ধারাবাহিকতায় বাল্যবিবাহ বন্ধে সামাজিক জাগরণ সৃষ্টির লক্ষ্যে ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা ২০৩০ (এসডিজি ১৬.২) অনুযায়ী- শিশুর প্রতি সকল ধরণের সহিংসতা, নির্যাতন, অত্যাচার, শোষণ বাল্যবিবাহ ও পাচার বন্ধে বাংলাদেশ সরকারের উদ্যোগকে সহযোগিতা এবং ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ বাল্যবিবাহমুক্ত গ্রাম প্রতিষ্ঠিত করার জন্য কাজ করছে।

সার্বিক তত্বাবধানে ওয়ার্ল্ড ভিশন পবা এপির সিনিয়র প্রোগ্রাম অফিসার রতন কুমার ভৌমিক  এবং সঞ্চালনায় শিমু আরজুর

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

পবায় বাল্যবিবাহ বন্ধে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন

আপডেট সময় : ১২:৫০:২২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৪ অগাস্ট ২০২৩

আমার গ্রাম, আমার দ্বায়িত্ব, শিশুর জীবন হোক, বাল্যবিবাহ মুক্ত এই শ্লোগানে রাজশাহীর পবা উপজেলার হুজুরীপাড়া ইউনিয়নের সাইরপুকুর গ্রামে বাল্যবিবাহ বন্ধে সচেতনতামূলক বিভিন্ন কর্মসূচি পালিত হয়। বাল্যবিবাহ বন্ধে সামাজিক জাগরণ সৃষ্টি উপলক্ষে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান (গম্ভীরা) অনুষ্ঠিত হয়েছে। এর আগে সাইরপুকুর মোড় হতে কনর্হার থানা পর্যন্ত বাল্যবিবাহ বন্ধে বিভিন্ন প্লেকার্ড, ব্যানার, পোস্টার, ফেস্টুন নিয়ে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালী বের হয়।

বৃহস্পতিবার (২৪ আগষ্ট) সকালে হুজুরীপাড়া সাইরপুকুর মোড় মাঠ প্রাঙ্গনে শিশু সুরক্ষা কামিটি, ভিজিল্যান্স টিম, শিশু ফোরাম ও ভিডিসির আয়োজনে ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ পবা এপির সহযোগিতায় হুজুরীপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো: গোলাম মোস্তফা এর সভাপতিত্বে  প্রধান অতিথি  ছিলেন কর্নাহার থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(অফিসার ইনচার্জ)কমল কুমার দেবনাথ।

বিশেষ অতিথি দারুসা দাখিল মাদ্রাসার এসিস্টেন্ট সুপার মো: সিরাজুল ইসলাম, কর্নাহার থানা সাব-ইন্সপেক্টর সাবিনা ইয়াসমিন, দারুসা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সোহরাব হোসেন, ইউসেপ টিম লিডার তাহমিদা খাতুন ও হুজুরীপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের ওয়ার্ড সদস্য আশরাফুল ইসলাম সহ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহন করে প্রায় এক হাজার জন শিশু, অভিভাবক, শিশু ফোরাম, ইয়ুথ ফোরামের সদস্য ও নেতৃবৃন্দ।

উল্লেখ্য বাল্যবিবাহ শিশুর প্রতিসহিংসতার অন্যতমকারণ। বাল্যবিবাহ বন্ধ করতে হলে প্রয়োজন সামাজিক জাগরণ। তৃনমূল পর্যায়ে বিশেষ করে গ্রাম পর্যায়ে সচেতনতা বৃদ্ধির মাধ্যমে বাল্যবিবাহমুক্ত করা সম্ভব। এরই ধারাবাহিকতায় বাল্যবিবাহ বন্ধে সামাজিক জাগরণ সৃষ্টির লক্ষ্যে ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা ২০৩০ (এসডিজি ১৬.২) অনুযায়ী- শিশুর প্রতি সকল ধরণের সহিংসতা, নির্যাতন, অত্যাচার, শোষণ বাল্যবিবাহ ও পাচার বন্ধে বাংলাদেশ সরকারের উদ্যোগকে সহযোগিতা এবং ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ বাল্যবিবাহমুক্ত গ্রাম প্রতিষ্ঠিত করার জন্য কাজ করছে।

সার্বিক তত্বাবধানে ওয়ার্ল্ড ভিশন পবা এপির সিনিয়র প্রোগ্রাম অফিসার রতন কুমার ভৌমিক  এবং সঞ্চালনায় শিমু আরজুর