ঢাকা ০২:২১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
দর্শনা হল্ট রেলওয়ে পুলিশের সহযোগীতায় হারানো ব্যাগ সহ ব্যাগের মধ্যে প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র ফিরে পেলেন এক যাত্রী রাজশাহী জেলা শাখা স্বাচিপ সভাপতি ডা. জাহিদ ও সম্পাদক ডা. অর্ণা জামান চুয়াডাঙ্গায় রেললাইনে ফাটল ধীরগতি ট্রেন চলাচল দর্শনা হল্ট রেলওয়ে স্টেশনে বিশেষ অভিযানে সাগরদাড়ী এক্সপ্রেস ট্রেনের বগি থেকে একজন পকেটমার গ্রেফতার গুলিবিদ্ধ হয়ে জীবনশঙ্কায় স্লোভাকিয়ার প্রধানমন্ত্রী গাজা নিয়ে মতবিরোধ, প্রথম ইহুদি-আমেরিকান বাইডেন কর্মকর্তার পদত্যাগ শ্রম আইন সংশোধনে আইএলও’র পরামর্শ গ্রহণ নিয়ে নীতি-নির্ধারণী পর্যায়ে আলোচনা হবে: আইনমন্ত্রী রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রীর দায়িত্ব থেকে শোইগুকে সরিয়ে দিচ্ছেন পুতিন ভয়াবহ আগুন ইসরাইল সেনাঘাঁটিতে নতুন করে চুরি হয়নি রিজার্ভ : বাংলাদেশ ব্যাংক

পবায় জাতীয় জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন দিবস পালন

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০২:০৮:২১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৬ অক্টোবর ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহীর পবা উপজেলায় জাতীয় জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন দিবস-২০২৩ উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এর আগে দিবসটি পালন উপলক্ষে উপজেলা পরিষদ চত্তরে বর্ণাঢ্য র‌্যালী বের হয়। জন্ম ও মৃত্য নিবন্ধনে বিশেষ অবদান রাখায় উপজেলার তিনটি ইউনিয়ন উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক সম্মননা স্বারক পুরষ্কার প্রদান করা হয়। প্রথম স্থান হড়গ্রাম ইউনিয়ন পরিষদ, দ্বিতীয় স্থান বড়গাছী ইউনিয়ন পরিষদ, তৃতীয় স্থান পারিলা ইউনিয়ন পরিষদ।

শুক্রবার (৬ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ১০টায় উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে দিবসটি উপলক্ষে র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু সালেহ্ মোহাম্মদ হাসনাত। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আরজিয়া বেগম ও ওয়াজেদ আলী খাঁন, উপজেলা প্রাণী সম্পদ অফিসার ডা: সুব্রত কুমার সরকার, হরিপুর ইউপি চেয়ারম্যান বজলে রেজবী আল হাসান মুন্জিল, দামকুড়া ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ, পারিলা ইউপি চেয়ারম্যান আবু সাঈদ মোরশেদ।

সভায় উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা শামসুন্নাহার এর সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য দেন উপজেলা সমাজসেবা অফিসার জাহিদ হাসান রাসেল। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিসংখ্যান কর্মকর্তা গোলাম ফারুক, উপজেলা হিসাবরক্ষণ অফিসার আবুল কালাম আজাদ, উপজেলা পল্লী দারিদ্র্য বিমোচন কর্মকর্তা হাফিজুর রহমান, ইসলামিক ফাউন্ডেশন পবা প্রতিনিধি মুসলেহুদ্দীন, উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা তন্ময় কুমার সরকার, পবা থানা সাব ইন্সপেক্টর শামীম, উপজেলা বিডিএমডিএ সহকারী কর্মকর্তা আবুল কাশেম, উপ-সহকারী পাট উন্নয়ন কর্মকর্তা গোলাম মোস্তফা, উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা রোজী খন্দকার, বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, সচিব, সদস্য, উদ্যোক্তা, গ্রাম পুলিশ সহ পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদ এবং উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

পবায় জাতীয় জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন দিবস পালন

আপডেট সময় : ০২:০৮:২১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৬ অক্টোবর ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহীর পবা উপজেলায় জাতীয় জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন দিবস-২০২৩ উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এর আগে দিবসটি পালন উপলক্ষে উপজেলা পরিষদ চত্তরে বর্ণাঢ্য র‌্যালী বের হয়। জন্ম ও মৃত্য নিবন্ধনে বিশেষ অবদান রাখায় উপজেলার তিনটি ইউনিয়ন উপজেলা প্রশাসন কর্তৃক সম্মননা স্বারক পুরষ্কার প্রদান করা হয়। প্রথম স্থান হড়গ্রাম ইউনিয়ন পরিষদ, দ্বিতীয় স্থান বড়গাছী ইউনিয়ন পরিষদ, তৃতীয় স্থান পারিলা ইউনিয়ন পরিষদ।

শুক্রবার (৬ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ১০টায় উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে দিবসটি উপলক্ষে র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু সালেহ্ মোহাম্মদ হাসনাত। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আরজিয়া বেগম ও ওয়াজেদ আলী খাঁন, উপজেলা প্রাণী সম্পদ অফিসার ডা: সুব্রত কুমার সরকার, হরিপুর ইউপি চেয়ারম্যান বজলে রেজবী আল হাসান মুন্জিল, দামকুড়া ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ, পারিলা ইউপি চেয়ারম্যান আবু সাঈদ মোরশেদ।

সভায় উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা শামসুন্নাহার এর সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য দেন উপজেলা সমাজসেবা অফিসার জাহিদ হাসান রাসেল। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিসংখ্যান কর্মকর্তা গোলাম ফারুক, উপজেলা হিসাবরক্ষণ অফিসার আবুল কালাম আজাদ, উপজেলা পল্লী দারিদ্র্য বিমোচন কর্মকর্তা হাফিজুর রহমান, ইসলামিক ফাউন্ডেশন পবা প্রতিনিধি মুসলেহুদ্দীন, উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা তন্ময় কুমার সরকার, পবা থানা সাব ইন্সপেক্টর শামীম, উপজেলা বিডিএমডিএ সহকারী কর্মকর্তা আবুল কাশেম, উপ-সহকারী পাট উন্নয়ন কর্মকর্তা গোলাম মোস্তফা, উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা রোজী খন্দকার, বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, সচিব, সদস্য, উদ্যোক্তা, গ্রাম পুলিশ সহ পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদ এবং উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।