ঢাকা ০৪:২০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
দর্শনা হল্ট রেলওয়ে পুলিশের সহযোগীতায় হারানো ব্যাগ সহ ব্যাগের মধ্যে প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র ফিরে পেলেন এক যাত্রী রাজশাহী জেলা শাখা স্বাচিপ সভাপতি ডা. জাহিদ ও সম্পাদক ডা. অর্ণা জামান চুয়াডাঙ্গায় রেললাইনে ফাটল ধীরগতি ট্রেন চলাচল দর্শনা হল্ট রেলওয়ে স্টেশনে বিশেষ অভিযানে সাগরদাড়ী এক্সপ্রেস ট্রেনের বগি থেকে একজন পকেটমার গ্রেফতার গুলিবিদ্ধ হয়ে জীবনশঙ্কায় স্লোভাকিয়ার প্রধানমন্ত্রী গাজা নিয়ে মতবিরোধ, প্রথম ইহুদি-আমেরিকান বাইডেন কর্মকর্তার পদত্যাগ শ্রম আইন সংশোধনে আইএলও’র পরামর্শ গ্রহণ নিয়ে নীতি-নির্ধারণী পর্যায়ে আলোচনা হবে: আইনমন্ত্রী রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রীর দায়িত্ব থেকে শোইগুকে সরিয়ে দিচ্ছেন পুতিন ভয়াবহ আগুন ইসরাইল সেনাঘাঁটিতে নতুন করে চুরি হয়নি রিজার্ভ : বাংলাদেশ ব্যাংক

মুক্তিযুদ্বের চেতনার অতেন্ত্র প্রহরী শেখ হাসিনা: আসাদ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৪:১৪:৫৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২ নভেম্বর ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ বলেছেন, মুক্তিযুদ্বের চেতনার অতেন্ত্র প্রহরী শেখ হাসিনা। বৃহস্পতিবার (২ নভেম্বর) বিকেলে রাজশাহীর মোহনপুর উপজেলার মৌগাছি ইউনিয়নের, কাশিমালা, গোপালপুর, চান্দ্রপাড়া মোড়, হরিপুর মোড়, পিয়ারপুর মোড় ও ধুরইল ইউনিয়ন বাগবাজার মোড়, মোহাম্মদপুর বাজারসহ বিভিন্ন স্থানে ও মোড়ে মোড়ে গণসংযোগ কালে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা আমাদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই চেতনায় বাংলাদেশের মানুষ জাগ্রত হবে। এই চেতনায় উদ্বুদ্ধ জনগণই আগামীতে দেশকে আরও এগিয়ে নিয়ে যাবে। মুক্তি যুদ্ধের চেতনার অতেন্ত্র প্রহরী শেখ হাসিনা।

আসাদ বলেন, ১৯৭৫ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার পর মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, আদর্শ ও ইতিহাস মুছে দেওয়ার চেষ্টা হয়েছিল। শেখ হাসিনা স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের মাধ্যমে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধরে রাখতে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন। এখন দেশের তরুণ প্রজন্মের মধ্যে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ফিরে আসতে শুরু করেছে, যা একটি বড় অর্জন। আশা করছি প্রদর্শনীর মাধ্যমে জনগণের হৃদয়ে দেশপ্রেম ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা জাগ্রত হবে।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী জেলা যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আলী আজম সেন্টু,  মোহনপুর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগ নেতা মেহবুব হাসান রাসেল, মোহনপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতা এনামুল হক, সুলতান মাস্টার, আজার আলী, ঘাসিগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আফজাল হোসেন বকুল, মৌগাছি ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান হোসেন আলী,  রাজশাহী জেলা যুবলীগের সাবেক সহ-সভাপতি বেলাল হোসেন সরকার, মোহনপুর উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি মুজিবুর মাস্টার, মোহনপুর উপজেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক মিলন মাস্টার, মোহনপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি, রনি আলি, ঘাসিগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার হাবিবা খাতুন,যুবলীগ নেতা আলাউদ্দিন, আওয়ামী লীগ নেতা আলী হোসেন, সাবেক ছাত্রনেতা কামাল হোসেন, রিপন আলী, হাফিজুর রহমান হাফিজ সহ মৌগাছি  ইউনিয়ন ও ধুরইল ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ এবং সকল সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

মুক্তিযুদ্বের চেতনার অতেন্ত্র প্রহরী শেখ হাসিনা: আসাদ

আপডেট সময় : ০৪:১৪:৫৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২ নভেম্বর ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ বলেছেন, মুক্তিযুদ্বের চেতনার অতেন্ত্র প্রহরী শেখ হাসিনা। বৃহস্পতিবার (২ নভেম্বর) বিকেলে রাজশাহীর মোহনপুর উপজেলার মৌগাছি ইউনিয়নের, কাশিমালা, গোপালপুর, চান্দ্রপাড়া মোড়, হরিপুর মোড়, পিয়ারপুর মোড় ও ধুরইল ইউনিয়ন বাগবাজার মোড়, মোহাম্মদপুর বাজারসহ বিভিন্ন স্থানে ও মোড়ে মোড়ে গণসংযোগ কালে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা আমাদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এই চেতনায় বাংলাদেশের মানুষ জাগ্রত হবে। এই চেতনায় উদ্বুদ্ধ জনগণই আগামীতে দেশকে আরও এগিয়ে নিয়ে যাবে। মুক্তি যুদ্ধের চেতনার অতেন্ত্র প্রহরী শেখ হাসিনা।

আসাদ বলেন, ১৯৭৫ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার পর মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, আদর্শ ও ইতিহাস মুছে দেওয়ার চেষ্টা হয়েছিল। শেখ হাসিনা স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের মাধ্যমে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধরে রাখতে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন। এখন দেশের তরুণ প্রজন্মের মধ্যে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ফিরে আসতে শুরু করেছে, যা একটি বড় অর্জন। আশা করছি প্রদর্শনীর মাধ্যমে জনগণের হৃদয়ে দেশপ্রেম ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা জাগ্রত হবে।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী জেলা যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আলী আজম সেন্টু,  মোহনপুর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগ নেতা মেহবুব হাসান রাসেল, মোহনপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতা এনামুল হক, সুলতান মাস্টার, আজার আলী, ঘাসিগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আফজাল হোসেন বকুল, মৌগাছি ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান হোসেন আলী,  রাজশাহী জেলা যুবলীগের সাবেক সহ-সভাপতি বেলাল হোসেন সরকার, মোহনপুর উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি মুজিবুর মাস্টার, মোহনপুর উপজেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক মিলন মাস্টার, মোহনপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি, রনি আলি, ঘাসিগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার হাবিবা খাতুন,যুবলীগ নেতা আলাউদ্দিন, আওয়ামী লীগ নেতা আলী হোসেন, সাবেক ছাত্রনেতা কামাল হোসেন, রিপন আলী, হাফিজুর রহমান হাফিজ সহ মৌগাছি  ইউনিয়ন ও ধুরইল ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ এবং সকল সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।