ঢাকা ০৩:১৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
দর্শনা হল্ট রেলওয়ে পুলিশের সহযোগীতায় হারানো ব্যাগ সহ ব্যাগের মধ্যে প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র ফিরে পেলেন এক যাত্রী রাজশাহী জেলা শাখা স্বাচিপ সভাপতি ডা. জাহিদ ও সম্পাদক ডা. অর্ণা জামান চুয়াডাঙ্গায় রেললাইনে ফাটল ধীরগতি ট্রেন চলাচল দর্শনা হল্ট রেলওয়ে স্টেশনে বিশেষ অভিযানে সাগরদাড়ী এক্সপ্রেস ট্রেনের বগি থেকে একজন পকেটমার গ্রেফতার গুলিবিদ্ধ হয়ে জীবনশঙ্কায় স্লোভাকিয়ার প্রধানমন্ত্রী গাজা নিয়ে মতবিরোধ, প্রথম ইহুদি-আমেরিকান বাইডেন কর্মকর্তার পদত্যাগ শ্রম আইন সংশোধনে আইএলও’র পরামর্শ গ্রহণ নিয়ে নীতি-নির্ধারণী পর্যায়ে আলোচনা হবে: আইনমন্ত্রী রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রীর দায়িত্ব থেকে শোইগুকে সরিয়ে দিচ্ছেন পুতিন ভয়াবহ আগুন ইসরাইল সেনাঘাঁটিতে নতুন করে চুরি হয়নি রিজার্ভ : বাংলাদেশ ব্যাংক

গোদাগাড়ীতে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠির নারীদের মধ্যে কাবিউস’র বিনামূল্যে গরু বিতরণ

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৩:২৯:৫২ অপরাহ্ন, বুধবার, ৮ নভেম্বর ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার পাকড়ী ইউনিয়নের গৌরীপুরে বসবাসরত ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠির কর্মকার সম্প্রদায়ের অসচ্ছল সাতটি পরিবারের নারী সদস্যদের মধ্যে বুধবার (৮ নভেম্বর) বেলা পৌনে ১২টার দিকে বিনামূল্যে বকনা গরু বিতরণ করা হয়।

কাকন বহুমূখি উন্নয়ন সংস্থা (কাবিউস) এর আয়োজনে এবং বাংলাদেশ এনজিও ফাউন্ডেশনের সহযোগিতায় বকনা গরু বিতরণ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কাবিউস এর নির্বাহী পরিচালক মধুসুদন মৈত্র। প্রধান অতিথি ছিলেন পাকড়ী ইউপি চেয়ারম্যান জালাল উদ্দিন মাস্টার। বিশেষ অতিথি ছিলেন অত্র সংস্থার সমন্বয়কারী দেলোয়ার হোসেন রিপন, পাকড়ী ইউপি ৬নং ওয়ার্ড সদস্য রেজাউল করিম, ১নং ইউপি সদস্য জাদের আলী, গৌরীপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শরিফুল ইসলাম। এসময় উপস্থিত ছিলেন কাবিউস কর্মকর্তা-কর্মীবৃন্দ।

প্রধান অতিথি কাবিউস এর এই কার্যক্রমের প্রসংশা করে বলেন, কাবিউস শুধু ঋন কার্যক্রম পরিচালনা করে না। তারা নানা ধরনের সামাজিক কাজ ও বিনাশর্তে এবং বিনামূল্যে অসহায় ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠি সম্প্রদায়সহ অসহায় অন্যান্য পরিবার গুলোকে অর্থনৈতিক সমস্যা দূর করে স্বাবলম্বী করে তুলতে তাদের মধ্যে গরু ও ভেড়া বিতরণ করে আসছে। প্রাপ্ত এই গরু বিক্রি না খাওয়ার জন্য সকলকে অনুরোধ করেন। সেইসাথে আগামীতে আরো যেন এই ধরনের কার্যক্রম বেশী করে পরিচালিত করতে পারেন সেজন্য কাবিউস এর নির্বাহী পরিচালককে অনুরোধ করেন প্রধান অতিথি। বক্তব্য শেষে তিনি উপস্থিত ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠির নারীদের হাতে বকনা গরু তুলে দেন।

এদিকে গরু পেয়ে সকিনা রানী, সাথী রানী, লক্ষি রানী, বুলবুলী রানী ও বিশকা রানীসহ গরু প্রাপ্ত অন্যান্যরা বলেন, এই সময়ে একটি যেনতেন গরু ক্রয় করতে গেলে পঞ্চাশ হাজার টাকার বেশী লাগে। সেখানে তারা কাবিউস সংস্থা থেকে বিনামূলে গরু পেলেন। শুধু তাই নয় গরু লালন-পালন সম্পর্কেও তারা ধারনা প্রদান করেছেন। এই গরু পেয়ে তারা অত্যন্ত খুশি। এই গরু তারা বিক্রি না করে পালন করে বড় করবেন। এরপর প্রয়োজনে সেখান থেকে বিক্রি করে সংসারের প্রয়োজন মেটাবেন বলে জানান তারা।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

গোদাগাড়ীতে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠির নারীদের মধ্যে কাবিউস’র বিনামূল্যে গরু বিতরণ

আপডেট সময় : ০৩:২৯:৫২ অপরাহ্ন, বুধবার, ৮ নভেম্বর ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার পাকড়ী ইউনিয়নের গৌরীপুরে বসবাসরত ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠির কর্মকার সম্প্রদায়ের অসচ্ছল সাতটি পরিবারের নারী সদস্যদের মধ্যে বুধবার (৮ নভেম্বর) বেলা পৌনে ১২টার দিকে বিনামূল্যে বকনা গরু বিতরণ করা হয়।

কাকন বহুমূখি উন্নয়ন সংস্থা (কাবিউস) এর আয়োজনে এবং বাংলাদেশ এনজিও ফাউন্ডেশনের সহযোগিতায় বকনা গরু বিতরণ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কাবিউস এর নির্বাহী পরিচালক মধুসুদন মৈত্র। প্রধান অতিথি ছিলেন পাকড়ী ইউপি চেয়ারম্যান জালাল উদ্দিন মাস্টার। বিশেষ অতিথি ছিলেন অত্র সংস্থার সমন্বয়কারী দেলোয়ার হোসেন রিপন, পাকড়ী ইউপি ৬নং ওয়ার্ড সদস্য রেজাউল করিম, ১নং ইউপি সদস্য জাদের আলী, গৌরীপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শরিফুল ইসলাম। এসময় উপস্থিত ছিলেন কাবিউস কর্মকর্তা-কর্মীবৃন্দ।

প্রধান অতিথি কাবিউস এর এই কার্যক্রমের প্রসংশা করে বলেন, কাবিউস শুধু ঋন কার্যক্রম পরিচালনা করে না। তারা নানা ধরনের সামাজিক কাজ ও বিনাশর্তে এবং বিনামূল্যে অসহায় ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠি সম্প্রদায়সহ অসহায় অন্যান্য পরিবার গুলোকে অর্থনৈতিক সমস্যা দূর করে স্বাবলম্বী করে তুলতে তাদের মধ্যে গরু ও ভেড়া বিতরণ করে আসছে। প্রাপ্ত এই গরু বিক্রি না খাওয়ার জন্য সকলকে অনুরোধ করেন। সেইসাথে আগামীতে আরো যেন এই ধরনের কার্যক্রম বেশী করে পরিচালিত করতে পারেন সেজন্য কাবিউস এর নির্বাহী পরিচালককে অনুরোধ করেন প্রধান অতিথি। বক্তব্য শেষে তিনি উপস্থিত ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠির নারীদের হাতে বকনা গরু তুলে দেন।

এদিকে গরু পেয়ে সকিনা রানী, সাথী রানী, লক্ষি রানী, বুলবুলী রানী ও বিশকা রানীসহ গরু প্রাপ্ত অন্যান্যরা বলেন, এই সময়ে একটি যেনতেন গরু ক্রয় করতে গেলে পঞ্চাশ হাজার টাকার বেশী লাগে। সেখানে তারা কাবিউস সংস্থা থেকে বিনামূলে গরু পেলেন। শুধু তাই নয় গরু লালন-পালন সম্পর্কেও তারা ধারনা প্রদান করেছেন। এই গরু পেয়ে তারা অত্যন্ত খুশি। এই গরু তারা বিক্রি না করে পালন করে বড় করবেন। এরপর প্রয়োজনে সেখান থেকে বিক্রি করে সংসারের প্রয়োজন মেটাবেন বলে জানান তারা।