ঢাকা ০২:৩৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::
দর্শনা হল্ট রেলওয়ে পুলিশের সহযোগীতায় হারানো ব্যাগ সহ ব্যাগের মধ্যে প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র ফিরে পেলেন এক যাত্রী রাজশাহী জেলা শাখা স্বাচিপ সভাপতি ডা. জাহিদ ও সম্পাদক ডা. অর্ণা জামান চুয়াডাঙ্গায় রেললাইনে ফাটল ধীরগতি ট্রেন চলাচল দর্শনা হল্ট রেলওয়ে স্টেশনে বিশেষ অভিযানে সাগরদাড়ী এক্সপ্রেস ট্রেনের বগি থেকে একজন পকেটমার গ্রেফতার গুলিবিদ্ধ হয়ে জীবনশঙ্কায় স্লোভাকিয়ার প্রধানমন্ত্রী গাজা নিয়ে মতবিরোধ, প্রথম ইহুদি-আমেরিকান বাইডেন কর্মকর্তার পদত্যাগ শ্রম আইন সংশোধনে আইএলও’র পরামর্শ গ্রহণ নিয়ে নীতি-নির্ধারণী পর্যায়ে আলোচনা হবে: আইনমন্ত্রী রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রীর দায়িত্ব থেকে শোইগুকে সরিয়ে দিচ্ছেন পুতিন ভয়াবহ আগুন ইসরাইল সেনাঘাঁটিতে নতুন করে চুরি হয়নি রিজার্ভ : বাংলাদেশ ব্যাংক

পবায় হিজড়া গোষ্ঠির সাথে কর্মকর্তাদের সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:২২:১০ অপরাহ্ন, সোমবার, ৪ ডিসেম্বর ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহীর পবায় বাঁচার আশা সাংস্কৃতিক সংগঠন এর বাস্তবায়নে উপজেলা পর্যায়ে সরকারি, বেসরকারি কর্মকর্তাদের নিয়ে সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। স্ট্রেনথথিং ক্যাপাসিটি অফ জেন্ডার ডাইভার্স কমিউিনিটি টু প্রজেক্ট দিয়ার নাইথ (এসসিজি) প্রকল্পের আওতায় এ সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সোমবার (৪ ডিসেম্বর) উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে বাঁচার আশা সাংস্কৃতিক সংগঠনের সভাপতি মোস্তফা সরকার (বিজলী)’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু সালেহ্ মোহাম্মদ হাসনাত। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আরজিয়া বেগম, সিনিয়র উপজেলা মৎস্য অফিসার আসাদুজ্জাজামান, উপজেলা শিক্ষা অফিসার রফিকুল ইসলাম, উপজেলা সমাজসেবা অফিসার জাহিদ হাসান রাসেল।

বাঁচার আশা সাংস্কৃতিক সংগঠনের সভাপতি মোস্তফা সরকার বিজলী বলেন, হিজড়াদের উন্নয়নে সকলের পরামর্শ ও সহযোগিতা নিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে চাই। বিকল্প কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা গ্রহণে সরকারি বেসরকারি উদ্যোগ ও সহযোগিতা কামনা করেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু সালেহ্ মোহাম্মদ হাসনাত বলেন, হিজড়াদের সরকার ভোটাধিকার দিয়েছে। তাদেরকে তৃতীয় লিঙ্গের একটা সনদ দেওয়া হচ্ছে। তারা এদেশের নাগরিক এরকম স্বীকৃতি আগে ছিল না। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উদ্যোগ নিয়ে এই স্বীকৃতি দিয়েছেন এটা সত্যিই প্রসংশনীয়। আগে তারা ভোটও দিতে পারতেন না। এখন এই জনগোষ্ঠীকে জনগন ভোট দিয়ে প্রতিনিধি নির্বাচিত করছে। কারণ তাদের উপর এখন আস্থা আছে, বিশ্বাস করছে তারা কাজ করবে। তারা ভাল কাজ করলে অনিয়ম থেকে দুরে থাকবে। তাদের সকল ভাল কাজে উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতা থাকবে সবসময়।

উপজেলা সমাজসেবা অফিসার জাহিদ হাসান রাসেল বলেন, হিজড়া জনগোষ্ঠীকে তার সম্পতি থেকে বঞ্চিত হলে আইনগত সহায়তা দেওয়া হবে বলে জানান। একজন মেয়ের মতো পোশাক পড়লেই সে হিজড়া এটা প্রমাণ করে না। আগে হিজড়া কিনা যাচাই বাছাই করে প্রমাণ করে হিজড়া পরিচয়পত্র দেওয়া হবে। পরিচয় পত্র প্রদানের পরে একজন ব্যক্তি হিজড়া কিনা সেটার প্রমাণ পাওয়া যাবে। হিজড়া জনগোষ্ঠীকে মূল স্রোতাধারায় ফিরিয়ে আনার জন্য সমাজসেবা অধিদপ্তরের সহায়তা চলমান থাকবে বলে তিনি সবাইকে আশ্বাস প্রদান করেন। যেকোন বিপদে হিজড়াদের পাশে থাকার জন্য তিনি দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন এবং পবা উপজেলার হিজড়াদের প্রতি সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

এসসিজি প্রকল্পের প্রকল্প সমন্বয়কারী আকতারুজ্জামানের পরিচালনায় এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা যুব উন্নয়ন অফিসার এম.এম.এন. জহুরুল ইসলাম, উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রণ কর্মকর্তা একেএম ফজলুল হক, উপজেলা সহকারী প্রোগ্রামার শহিদুল ইসলাম শহিদ, এফপিএবি প্রোগ্রাম কো-অডিনেটর জাহিদ হাসান, ব্র্যাক জেলা সমন্বয়ক মহসিন আলী, ইউসেপ বাংলাদেশ রাজশাহীর আঞ্চলিক ব্যবস্থাপক শাহিনুল ইসলাম, ব্লাস্ট এর ল-ইয়ার রেজাউল ইসলাম, উপজেলা মহিলা বিষয়ক অফিসের প্রশিক্ষক মাহমুদা খাতুন, বাঁচার আশা সাংস্কৃতিক সংগঠনের নির্বাহী সদস্য বিশু, সোনালী, মাধুরীসহ সাংবাদিক, সরকারী ও বেসরকারী কর্মকর্তা এবং তৃতীয় লিঙ্গের প্রতিনিধিবৃন্দ।

ট্যাগস :

নিউজটি শেয়ার করুন

পবায় হিজড়া গোষ্ঠির সাথে কর্মকর্তাদের সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত

আপডেট সময় : ০১:২২:১০ অপরাহ্ন, সোমবার, ৪ ডিসেম্বর ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহীর পবায় বাঁচার আশা সাংস্কৃতিক সংগঠন এর বাস্তবায়নে উপজেলা পর্যায়ে সরকারি, বেসরকারি কর্মকর্তাদের নিয়ে সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। স্ট্রেনথথিং ক্যাপাসিটি অফ জেন্ডার ডাইভার্স কমিউিনিটি টু প্রজেক্ট দিয়ার নাইথ (এসসিজি) প্রকল্পের আওতায় এ সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সোমবার (৪ ডিসেম্বর) উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে বাঁচার আশা সাংস্কৃতিক সংগঠনের সভাপতি মোস্তফা সরকার (বিজলী)’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু সালেহ্ মোহাম্মদ হাসনাত। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আরজিয়া বেগম, সিনিয়র উপজেলা মৎস্য অফিসার আসাদুজ্জাজামান, উপজেলা শিক্ষা অফিসার রফিকুল ইসলাম, উপজেলা সমাজসেবা অফিসার জাহিদ হাসান রাসেল।

বাঁচার আশা সাংস্কৃতিক সংগঠনের সভাপতি মোস্তফা সরকার বিজলী বলেন, হিজড়াদের উন্নয়নে সকলের পরামর্শ ও সহযোগিতা নিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে চাই। বিকল্প কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা গ্রহণে সরকারি বেসরকারি উদ্যোগ ও সহযোগিতা কামনা করেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু সালেহ্ মোহাম্মদ হাসনাত বলেন, হিজড়াদের সরকার ভোটাধিকার দিয়েছে। তাদেরকে তৃতীয় লিঙ্গের একটা সনদ দেওয়া হচ্ছে। তারা এদেশের নাগরিক এরকম স্বীকৃতি আগে ছিল না। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উদ্যোগ নিয়ে এই স্বীকৃতি দিয়েছেন এটা সত্যিই প্রসংশনীয়। আগে তারা ভোটও দিতে পারতেন না। এখন এই জনগোষ্ঠীকে জনগন ভোট দিয়ে প্রতিনিধি নির্বাচিত করছে। কারণ তাদের উপর এখন আস্থা আছে, বিশ্বাস করছে তারা কাজ করবে। তারা ভাল কাজ করলে অনিয়ম থেকে দুরে থাকবে। তাদের সকল ভাল কাজে উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতা থাকবে সবসময়।

উপজেলা সমাজসেবা অফিসার জাহিদ হাসান রাসেল বলেন, হিজড়া জনগোষ্ঠীকে তার সম্পতি থেকে বঞ্চিত হলে আইনগত সহায়তা দেওয়া হবে বলে জানান। একজন মেয়ের মতো পোশাক পড়লেই সে হিজড়া এটা প্রমাণ করে না। আগে হিজড়া কিনা যাচাই বাছাই করে প্রমাণ করে হিজড়া পরিচয়পত্র দেওয়া হবে। পরিচয় পত্র প্রদানের পরে একজন ব্যক্তি হিজড়া কিনা সেটার প্রমাণ পাওয়া যাবে। হিজড়া জনগোষ্ঠীকে মূল স্রোতাধারায় ফিরিয়ে আনার জন্য সমাজসেবা অধিদপ্তরের সহায়তা চলমান থাকবে বলে তিনি সবাইকে আশ্বাস প্রদান করেন। যেকোন বিপদে হিজড়াদের পাশে থাকার জন্য তিনি দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন এবং পবা উপজেলার হিজড়াদের প্রতি সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

এসসিজি প্রকল্পের প্রকল্প সমন্বয়কারী আকতারুজ্জামানের পরিচালনায় এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা যুব উন্নয়ন অফিসার এম.এম.এন. জহুরুল ইসলাম, উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রণ কর্মকর্তা একেএম ফজলুল হক, উপজেলা সহকারী প্রোগ্রামার শহিদুল ইসলাম শহিদ, এফপিএবি প্রোগ্রাম কো-অডিনেটর জাহিদ হাসান, ব্র্যাক জেলা সমন্বয়ক মহসিন আলী, ইউসেপ বাংলাদেশ রাজশাহীর আঞ্চলিক ব্যবস্থাপক শাহিনুল ইসলাম, ব্লাস্ট এর ল-ইয়ার রেজাউল ইসলাম, উপজেলা মহিলা বিষয়ক অফিসের প্রশিক্ষক মাহমুদা খাতুন, বাঁচার আশা সাংস্কৃতিক সংগঠনের নির্বাহী সদস্য বিশু, সোনালী, মাধুরীসহ সাংবাদিক, সরকারী ও বেসরকারী কর্মকর্তা এবং তৃতীয় লিঙ্গের প্রতিনিধিবৃন্দ।